EXCLUSIVE NEWS

শ্রীরামপুর আইএমএ’র টিটি প্রতিযোগিতা শেখাল মন-শরীর দুই-ই বিকাশের মন্ত্র

 

১৫ ফেব্রুয়ারি ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের শ্রীরামপুর শাখা তাদের সদর দফতরেই এক আমন্ত্রণমূলক টেবিল টেনিস প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। হাজির ছিলেন শ্রীরামপুর আইএমএ’র সভাপতি ডাঃ প্রদীপ কুমার দাস সহ শহরের বিভিন্ন জগতের জ্ঞানী-গুণীরা। উপস্থিতের তালিকায় ছিলেন জাতীয় স্তরে প্রতিনিধিত্ব করা অন্যান্য টিটি তারকারাও।

 

সকাল থেকেই এই প্রতিযোগিতা ঘিরে কচি-কাঁচাদের চোখে মুখে ছিল উদ্দীপনার ছাপ। প্রতিযোগিতায় ছিলেন শ্রীরামপুর আইএমএ ভবনে অনুশীলন করা খুদে খেলোয়াড়রাও। কারও খেলায় যেমন ফুটে উঠল অভিজ্ঞতার ছাপ, কেউ হয়তো অনভিজ্ঞতার কারণে প্রথমেই হেরে বিদায় নিলেন। যদিও সবার বিনা যুদ্ধে এক ইঞ্চি মাটিও না ছাড়াও প্রবণতা মুগ্ধ করল দর্শকদের। নার্সারি বিভাগে জিতলেন আদিত্য সাউ এবং রানার্স-আপ রূপসা রায়। ক্যাডেট বিভাগে জয়ের মুকুট মাথায় উঠল তন্ময় দালালের, সেখানে প্রকৃতি নস্করকে রানার্স-আপেই সন্তুষ্ট থাকতে হল। সাব-জুনিয়র বিভাগে দাপটের সঙ্গে খেলে জয়ের শিরোপা ছিনিয়ে নিলেন দেবজিৎ চ্যাটার্জী। তুল্যমূল্য লড়াই করে রানার্স-আপ হলেন ঋদ্ধিমান ভট্টাচার্য্য।

 

সকলকে চমকে দিয়ে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে হাজিন হন প্রেমাঙ্গী ঘোষ এবং অরণ্যতেশ গাঙ্গুলী। প্রেমাঙ্গী ইতিমধ্যেই ইউরোপে গিয়ে টিটিতে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। অন্যদিকে ক্যান্সার সারিয়ে উঠে অরণ্যতেশ মস্কো অলিম্পিকে ভারতকে দিয়েছেন সোনা। আইএমএ শ্রীরামপুর বিশ্বাস করে প্রতিযোগিতা মানে শক্তির পরীক্ষা নয় একেবারেই, বরং শক্তির প্রতি মর্যাদা প্রদর্শন। তাই এদিনের প্রত্যেক প্রতিযোগীকে শংসাপত্র এবং খেলার বিশেষ জার্সি দিয়ে উৎসাহিত করা হল। সংগঠনের সভাপতি প্রদীপ কুমার দাস আগামী বছরও ফের এই টিটি প্রতিযোগিতা আয়োজনের অঙ্গীকার করেন।

 

Promotion