EXCLUSIVE NEWS

লকডাউনের চরম দুর্দিনে মানুষের পাশে ‘সোনারপুর উদ্যোগ’ পরিবার

 

২০১৬ সালে মাত্র ১৩ জন নিবেদিত প্রাণ সদস্য নিয়ে পথ চলা শুরু। টিফিনের পয়সা বাঁচিয়ে মাসে মাসে ৪০ টাকা জমিয়ে স্বল্প পুঁজির তহবিল গড়ে তোলা। সেই পুঁজি নিয়েই দুঃস্থ মানবতার সেবায় ঝাঁপিয়ে পড়া। এভাবেই সদস্য বন্ধুদের এই কাজ টেনে আনে আরও অনেক সহমর্মী বন্ধুদের। সদস্য সংখ্যার সাথে বাড়ল তহবিল, বাড়ল কাজের পরিধি। ইতিমধ্যেই ৩০ জন অভাবী পড়ুয়ার হাতে যাবতীয় শিক্ষা সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়েছিল । পরে যথাক্রমে ৪০, ৫০ এবং ৭৫ জন আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া ছাত্রছাত্রীদের হাতে বইখাতা সহ অন্যান্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। উদ্যোগের অন্যতম তাৎপর্যপূর্ণ কাজ যে কোনো অনুষ্ঠান বাড়ির উদ্বৃত্ত খাবার সংগ্রহ করে এনে সোনারপুর রেল স্টেশন চত্বরে রাত্রিবাস করা অন্ততঃ ৩৫ জন মানুষকে দেওয়া। এছাড়াও অনেক মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের ‘উদ্যোগ’ নতুন কিংবা পুরনো বইপত্র দিয়ে সাহায্য করে থাকে। সবকিছুই চলছিল ঠিকঠাক। কিন্তু সহসা অতিমারী করোনার অতর্কিত আক্রমণে সমগ্র পৃথিবী জুড়ে নেমে এলো লকডাউনের খাড়া। স্তব্ধ হলো জনজীবন। দিন আনা দিন খাওয়া মানুষের ঘরে নেমে এলো অনাহারের কালরাত্রি।

 

কাজেই রবীন্দ্র-জয়ন্তীতে কবি প্রণাম সন্ধ্যার আয়োজন এবছর কার্যত অসম্ভব বুঝে উদ্যোগ মানুষকে সেবা দানের সিদ্ধান্ত নিল। এখনও পর্যন্ত উদ্যোগ ৪৫০টি পরিবারের হাতে প্রয়োজনীয় খাবার সামগ্রী তুলে দিয়েছে। প্রথম পর্যায়ে রামকৃষ্ণ মিশন সেবা প্রতিষ্ঠান, কলকাতা ন্যাশানাল মেডিক্যাল কলেজ এন্ড হসপিটাল, আর জিকর মেডিক্যাল কলেজ এন্ড হসপিটাল, এসএসকেএমের মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এবং ‘ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন’র সভাপতি ও সাংসদ শ্রী শান্তনু সেনের হাতে ৫০ টি পিপিই কিটস তুলে দিয়েছে। আরও একটু এগিয়ে এই লড়াইয়ে সামিল অন্য যোদ্ধাদেরও কুর্নিশ জানানোর সিদ্ধান্ত নেয় তাঁরা। সেই সিদ্ধান্ত কার্যকর করার লক্ষ্যে উদ্যোগ সোনারপুর থানার আইসি সঞ্জীব চক্রবর্তীর হাতে ১০০ টি এবং সোনারপুর জংশন জিআরপি প্রধান ঋকবেদ সাহার হাতে ২৫ টি মাস্ক ও গ্লাভস তুলে দিয়েছে । কর্তব্যরত তিন সাংবাদিকের হাতেও ঐ মাস্ক এবং গ্লাভস তুলে দেওয়া হয়। এরপর আজই সোনারপুর অঞ্চলের ১২ জন অ্যাম্বুলেন্স চালকের হাতে পিপিই কিটস প্রদান করা হয় উদ্যোগ পরিবারের পক্ষ থেকে। এগুলি হাতে পেয়ে চালকেরা প্রত্যেকেই ভীষণ সন্তোষ প্রকাশ করেছেন ।
যাদের আর্থিক সাহায্যে সমৃদ্ধ হয়ে ‘উদ্যোগ’ পরিবার মানুষের কাছে থাকতে পারছে, তাঁদের সবাইকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানানো হয়েছে সংগঠনের তরফে।

Promotion