EXCLUSIVE NEWS

কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেসে বিহারী যুবকদের নোংরামি, প্রতিবাদী বাঙালি যাত্রীরা

১৩১৫০ কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেস ১৪ আগস্ট রাত এগারোটা নাগাদ ডালখোলা ঢোকে। অভিযোগ সেখানে ট্রেন ঢুকতেই একদল গেরুয়া গেঞ্জি পরা বিহারী যুবক এসে কামরার দরজায় লাথি মেরে দরজা খুলতে বলে। কেউ দরজা না খুললে জানালা দিয়ে হাত গলিয়ে হিন্দিতে কাঁচা খিস্তি দিয়ে শাসাতে থাকে।  এক বয়স্ক রেল পুলিশ তাদের জেনারেল বগিতে যেতে বলেন। মাথায় গেরুয়া ফেট্টি বাঁধা এক নেতা গোছের ছেলে তাকে রীতিমত শাসাতে থাকে। ইতিমধ্যেই কামরার সামনের দিকের দরজা কেউ খুলে দেয়। যার ফলশ্রুতি হিসেবে পিলপিল করে গেরুয়া গেঞ্জি পরা ছেলেরা ঢুকে পড়ে। কামরার শুরুতেই এক থেকে আট নাম্বার সিটে কমবয়সী কিছু মেয়ে শুয়ে ছিলেন। বিহারী যুবকরা তাদের উদ্দেশ্যে কিছু অশ্লীল মন্তব্য করে। সেই মেয়েদের প্রতিবাদ এবং চেঁচামেচিতে গোটা কামরা জেগে ওঠে। বিহারী যুবকদের নামিয়ে দেওয়ার দাবী তোলেন বাঙালি যাত্রীরা।

ওই কামরাতেই যাত্রী ছিলেন মানস নাথ। তিনি জানান, রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ ট্রেন বারসোই জংশনে পৌঁছলে বিহারী বাহিনী গেট দিয়ে হুড়মুড় করে নেমে গেল। এদিক ওদিক ডেকে লোক জুটিয়ে তারা কামরার বাইরে রেললাইনে ভিড় বাড়াতে থাকেন । কি হতে চলেছে আন্দাজ করে আমরা হুড়মুড় করে জানালা বন্ধ করতে লাগলাম। কিন্তু অনেকেই জানালার লোহার শাটার তড়িঘড়িতে নামাতে পারেনি। শুরু হল পাথর বৃষ্টি। দু’একটা জানালার কাঁচ ভাঙল। অবশেষে ট্রেন ছাড়ে। সকল যাত্রী নিরাপদেই শিয়ালদা ফেরেন। ট্রেন শিয়ালদা ঢোকার পরেই যাত্রীরা পুলিশের কাছে ক্ষোভে ফেটে পড়েন।

Promotion