EXCLUSIVE NEWS

সমাজের প্রতি প্রশ্ন তুলে আশুতোষ কলেজের সাধারণ পড়ুয়াদের গণ-রাখিবন্ধন

চারিদিকে ধর্ম নিয়ে এই হৈ-হুল্লোড়ের মধ্যে আমরা যেন ভুলে যেতে বসেছি আমাদের সংস্কৃতি। আর এই সময় কবিগুরুর স্বপ্নের “ওরে সবুজ, ওরে অবুঝ” হয়ে উঠতে পারে একমাত্র ছাত্রসমাজই। কারণ তাদের ধর্ম সারাক্ষণ অচলায়তনকে প্রশ্ন করা ও উন্নত কিছুর লক্ষ্যে এগিয়ে যাওয়া। আসলে ছাত্রসমাজের এই বারে বারে প্রশ্ন করার মধ্যেই থেকেছে স্বাধীনতার আসল মানে।  ১৪  আগস্ট তিলোত্তমা আশুতোষ কলেজের সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের সেরকমই এক প্রচেষ্টার সাক্ষী থাকলো। আসলে শুভদীপ,মুসকান,সুমনা,পূজা,শিবম,দীপ,সুদেষ্ণা,দর্পণরা নিজেরাও দেখলেন, বাকিদেরও দেখালেন স্বপ্ন।

 

স্বাধীনতা দিবস ও রাখীবন্ধন উপলক্ষ্যে এদিন আশুতোষ কলেজের সাধারণ পড়ুয়ারা এক রাখীবন্ধনের ডাক দেন। এটি শুধুমাত্র  ভাই বোনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল না। এক অংশগ্রহণকারী পড়ুয়া বলেন, সেই বঙ্গভঙ্গের সময় কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ দেশ জুড়ে সাম্প্রদায়িক বিভাজনের বিরুদ্ধে গণ-রাখীবন্ধনের ডাক দিয়েছিলেন। আমরা সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা মনে করি আজকের দিনে আলাদা করে কোনো ভাইয়ের তার বোনকে রক্ষা করার প্রয়োজন নেই। বরং এই প্রথাকে আমরা পিতৃতান্ত্রিক সমাজের চরম লিঙ্গবিদ্বেষী একটা প্রথা হিসেবে দেখি। এই বর্তমান পরিস্থিতিতে আর ভাগাভাগি হয়ে থাকার কোনো মানে নেই। বরং সময় এসেছে জাতি, ধর্ম, লিঙ্গ, বর্ণ নির্বিশেষে একে অপরের পাশে দাঁড়ানোর।  উদ্যোগটিতে যোগ দেওয়া এক ছাত্রী বলেন, আমরা কলেজের নিরাপত্তা-রক্ষী থেকে শুরু করে হাজরা মোড়ের ট্রাফিক পুলিশ এবং কলকাতা পুলিশের হাতে রাখি বাঁধলাম। যারা দিনরাত আমাদের সুরক্ষায় নিয়োজিত তাদের হাতে রাখি বাঁধলাম যাতে আমরা নিরাপদ থাকতে পারি। ওনারাও ভালো থাকতে পারেন।

 

Promotion