Editorial

আপনার প্রতিটি পদক্ষেপ কি গণ-নজরদারি ব্যবস্থার আওতায় আসতে চলেছে?

নজরদারি বা ইংরেজিতে যাকে আমরা ‘সার্ভেল্যান্স’ বলি তা এই প্রযুক্তির যুগে আমাদের কাছে বিশেষ অজানা নয়। কোনও সংস্থা বা ব্যক্তির ওপর বিশেষ কারণে নজরদারির চল আজকের নয়, রাষ্ট্র তা বহুকাল ধরেই করে আসছে।কিন্তু বর্তমানে প্রযুক্তির উন্নতির দৌলতে নতুন একটি শব্দ শোনা যাচ্ছে যার নাম, ‘মাস সার্ভেল্যান্স সিস্টেম’। অর্থাৎ এমন একটি ব্যবস্থা যা দিয়ে এক সঙ্গে সকলের ওপর নজরদারি চালানো যায়। তা সে আপনার একান্ত ব্যক্তিগত কথাবার্তাই হোক বা কোনও অসামাজিক কাজের চক্রান্ত। যদিও সরকারের যুক্তি এতে নাকি অপরাধ কমবে। কিন্তু আর কি কিছুই হবে না? এখানেই বিশেষজ্ঞ মহলের আপত্তি।

 

আসুন, একটু বিশদে জানা যাক কি এই গন-নজরদারি ব্যবস্থা। এই পদ্ধতি একসঙ্গে বহু মানুষের সমস্ত কাজকর্মকে নথিভুক্ত করতে সক্ষম একটি ব্যবস্থা। আপনি কোথায় কী করলেন, কোথায় গেলেন, কাকে টাকা দিলেন সমস্ত কিছুই তুড়ির মধ্যে নথিবদ্ধ হয়ে যাবে এই ব্যবস্থায়। ভারতে ইতিমধ্যেই এরকম একটি ব্যবস্থা র‍য়েছে যার নাম NATGRID(ন্যাটগ্রিড)। এখানে আপনার ফোন কল ও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের রেকর্ড থেকে শুরু করে জমি-বাড়ির দলিল সবই সংগ্রহ করে রাখা হয়। এখন সমস্ত কিছুই আধার কার্ডের সঙ্গে যুক্ত করার নিয়ম এসেছে। তাই শুধু আধার কার্ডের নম্বর জানলেই যে কেউ সব কিছুই জেনে ফেলতে পারে এক নিমেষে।

 

এই ব্যবস্থা কি সত্যিই খারাপ? এক কথায় বলতে গেলে, না খারাপ নয় যতক্ষণ না তার অপব্যবহার শুরু হচ্ছে। এই ব্যবস্থার ফলে যে অপরাধীদের সহজে ধরা যাচ্ছে তা অস্বীকার করার উপায় নেই। কিন্তু যদি তা খারাপ লোকের হাতে আসে? যদি অত্যাচারী শাসকের হাতে এসে পড়ে এর নিয়ন্ত্রণ? তবে ভীষন বিপদ। সে তার বিরুদ্ধে কথা বলা সমস্ত নাগরিককে শনাক্ত করে মেরে ফেলতে সক্ষম হবে। এর উদাহরণ চিন, রাশিয়া, উত্তর কোরিয়ার মতো আরও অনেক অনেক দেশ। তবে ভারতের ক্ষেত্রে এই ব্যবস্থার অপব্যবহার সেইভাবে শুরু হয়নি কয়েকটি ঘটনা ছাড়া। ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলি মূলতঃ সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা মজবুত করার লক্ষ্যেই এই ধরনের সিস্টেম ব্যবহার করে। এটির বহুল প্রচলন শুরু হয় প্রায় দশ বছর আগে মুম্বইতে জঙ্গীহানার পর থেকে। তবে তথ্য রক্ষার নিশ্চয়তা না থাকায় একান্ত ব্যক্তিগত যে কোনও তথ্যও ফাঁস হয়ে যেতেই পারে। একজন ভারতীয় হিসেবে আমরা এখনও মাস সার্ভেল্যান্স সিস্টেমের অপব্যবহারের শিকার হইনি। তবে আগামী দিনে যে তা হবো না তার গ্যারান্টি কী?

Promotion