EXCLUSIVE NEWS

আন্দোলনে যোগ দেওয়া ছাত্রকে শায়েস্তা করতে নম্বর কমানোর অভিযোগে বিদ্ধ যাদবপুরের গবেষক!

 

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে সাম্প্রতিক কালে সাংবাদিকতা ও গণজ্ঞাপন বিভাগে উঠেছে একের পর এক দুর্নীতির অভিযোগ। কখনও প্রবেশিকা পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তি প্রক্রিয়ায় অস্বচ্ছতা তো কখনও ছাত্রছাত্রীদের গণফেল। শিক্ষকদের বিরূদ্ধে স্বজনপোষণের অভিযোগে আন্দোলনেও নেমেছেন এই বিভাগের ছাত্রছাত্রীরা।

 

সাংবাদিকতা ও গণজ্ঞাপন বিভাগ থেকেই সদ্য স্নাতকোত্তর উত্তীর্ণ হয়েছেন জয়দীপ দাস। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি একটি ই-মেল পান। মেইল মারফত পাঠানো কিছু স্ক্রিনশটে তিনি দেখতে পান তারই দ্বিতীয় সেমিস্টারের ইন্টারন্যাশনাল কমিউনিকেশনের উত্তরপত্রের ছবি। এই বিভাগেরই রিসার্চ স্কলার অভ্র সেন খাতাটি দেখেছেন। কোনও এক অজ্ঞাত পরিচয়ের ব্যক্তির সঙ্গে কথোপকথনে অভ্র সেন বলেছেন, “এটা জয়দীপের এই সেমেস্টারের আইসি নামে পেপারের উত্তরপত্র। এমন চেপেছি মার্কস যে জব্দ হবেই।” ওই ব্যক্তি এতোটা নিশ্চিত হওয়ার কারণ জানতে চাইলে তাকে পাঠানো হয়েছে জয়দীপের উত্তরপত্রের ছবি। সেই সঙ্গে অভিযুক্ত গবেষকের দাবী “কেরিয়ারের চিন্তা থাকলে আন্দোলন করা উচিত হয়নি। নম্বর এমন চেপেছি যে জব্দ হবেই। এরপর ওদের নিজেদের দলেই নম্বরের জন্য ভাঙন ধরবে।”

 

সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানকারী গবেষকের এই ধরণের কার্যকলাপে উঠেছে নিন্দার ঝড়। যাদবপুরের একটি প্রথম সারির বিশ্ববিদ্যালয়। ছাত্রছাত্রীরা সেখানে পড়তে আসেন স্বপ্ন নিয়ে, তারা যেভাবে এই ষড়যন্ত্রের শিকার তা নিয়ে সরব অনেকেই। ইতিমধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণজ্ঞাপন বিভাগের তরফে যাদবপুর থানায় অভ্র সেনের নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্ত গবেষককে ফোনে যোগাযোগ করে পাওয়া যায় নি।

Promotion