EXCLUSIVE NEWS

অসমের এনআরসি তালিকা থেকে বাদ স্বাধীনতা সংগ্রামী যোগেশ দেবের পরিবার

অসমের শ্রীহট্টে জন্ম স্বাধীনতা সংগ্রামী যোগেশ দেবের। কলেজে পড়াশোনা চলাকালীন তিনি জড়িয়ে পড়েন স্বাধীনতা আন্দোলনে। যোগদান করেন ১৯৪২ সালে গান্ধীজির ডাকা ব্রিটিশ ভারত ছাড়ো আন্দোলনে। পেয়েছেন স্বাধীনতার পর সংগ্রামীর শংসাপত্র। পরবর্তী সময়ে অসমে ভাষা আন্দোলনেও নেতৃত্ব দিয়েছিলেন যোগেশ দেব।১৯৭১ সালেও ভোটার তালিকায় নাম ছিল যোগেশ দেবের এবং তার পরিবারের সদস্যদের। তাঁর তিন ছেলে জগদীশ, দিলীপ এবং জ্যোতির্ময়ের মধ্যে বড় ছেলে প্রয়াত।

চলতি বছরের ৩১ আগস্টে প্রকাশিত নাগরিকপঞ্জির তালিকায় জায়গা হয়নি বিপ্লবী যোগেশ দেবের পরিবারের। কিছুতেই  খুঁজেও পাওয়া গেল না জ্যোতির্ময় দেব বা দিলীপ কুমার দেবের নাম। পাওয়া গেলো না তাঁর ছেলে-নাতি-নাতনিদের নাম। তাঁদের বক্তব্য, ‘আমরা স্বাধীনতা সংগ্রামীর বংশধর। কিন্তু আজ তো আমরা স্বদেশেই পরাধীন হয়ে গেলাম।’

সময় যত গড়াচ্ছে, চূড়ান্ত নাগরিকপঞ্জির হাতে আসা তথ্য খতিয়ে দেখে চরম বিস্ময়ে চোখ কপালে তুলছেন অনেকেই। তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন ১৯ লক্ষ মানুষ যাদের মধ্যে ১৭ লক্ষ বাঙালি । ১৭ লক্ষ বাঙালির মধ্যে ১১ লক্ষ হিন্দু বাঙালি এবং ৬ লক্ষ মুসলিম বাঙালি। এদিকে, এনআরসি’র তালিকা নিয়ে ক্ষোভ ক্রমশই বাড়ছে গোটা অসম জুড়ে। শুক্রবার রাজ্যজুড়ে ১২ ঘণ্টা বনধের ডাক দিয়েছে অল অসম স্টুডেন্ট ইউনিয়ন (আসু)-সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, অরাজনৈতিক সংগঠনগুলি। পাল্টা পথে নামছে বহু বাঙালি সংগঠনও।

Promotion