EXCLUSIVE NEWS

দিল্লিতে বাঙালির মাছের বাজার ভেঙে দিলো বিজেপি-শাসিত মিউনিসিপ্যাল বোর্ড

 

দিল্লির বাঙালিরা মূলতঃ মাছ-মাংস কেনেন কালকাজির মাছবাজার বা ‘মাচ্ছি মার্কেট’ থেকে। বাঙালি ব্যবসায়ীরা মাছের বাজার বসান ওখানে। এলাকায় রয়েছে একটা কালী মন্দিরও। প্রচুর বড় অংশ নিয়ে বিশেষ ভাবে বানানো জায়গায় ফুটপাথের ভেতরের দিকে সমস্ত স্টল। সন্ধ্যেবেলা এই বাজারে গমগম করে ভিড়। ঠিক রাস্তার উল্টোদিকে মেইন রাস্তার ওপরেও প্রচুর সবজির স্টল।

 

 

গত মঙ্গলবার রাজধানীর রাস্তায় ঘটে যাওয়া এক নৃশংস পরিস্থিতি শিকার হলেন বাঙালী মাছ ব্যবসায়ীরা। এক প্রত্যক্ষদর্শী অভিরূপ চক্রবর্তী এদিন মাছ কিনতে গিয়ে দেখেন সেখানে আলো নেই, দোকান নেই। এমনকি অস্থায়ী ছাউনিগুলিও অদৃশ্য। ফাঁকা শ্মশানের চেহারা নিয়েছে গোটা মাছের বাজার। মাত্র দুটি দোকান বিনা আলোয় বসেছে, দোকানদারের চোখে ভয় স্পষ্ট। প্রশ্ন করে উত্তর পাওয়া গেল, দিল্লির কালকাজি অঞ্চলের বিজেপি শাসিত  মিউনিসিপ্যাল বোর্ড বলপূর্বক সব দোকান ভাঙচুর করে গিয়েছে। কারণ যদিও অজানা। কেউ বলছেন রাস্তায় ভিড় হতো বলে, কেউ বলছেন মাছের গন্ধ আসতো বলে এই ধ্বংসলীলা। অথচ আশ্চর্যজনক ভাবেই রাস্তার উল্টো দিকে অর্ধেক রাস্তা জুড়ে থাকা সব্জির দোকানগুলি কিন্তু পুরোদমে চলেছে। বাঙালি মৎস্য ব্যবসায়ীদের দীপাবলির আগে এই দুর্বিষহ অবস্থা কেন হলো তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই। শোনা যাচ্ছে ‘দেওয়ালির’ আগে কোনও ব্যবস্থা হওয়ার সম্ভাবনা নেই। পরেও যে হবে তার কোনো আশা আপাততঃ দেখা যাচ্ছে না। অভিরূপ চক্রবর্তী আরও বলেন, গত এক দশক ধরেই প্রতি বছর এই ধরনের হেনস্থার মুখে পড়ছেন এই মাছ ব্যবসায়ীরা।

 

Promotion