EXCLUSIVE NEWS

মেদিনীপুরের পেটুয়া জুনিয়র হাই স্কুলের খুদেরাই এখন পরিবেশ বাঁচানোর সৈনিক!

আজ সারা বিশ্ব যখন প্লাস্টিক নামক অসুরের দাপটে নাভিশ্বাস ফেলছে, ঠিক তখনই একটি বিদ্যালয়ের খুদেরা পরিবেশের হয়ে লড়তেএগিয়ে এলো। পূর্ব মেদিনীপুরের পেটুয়া জুনিয়র হাই স্কুল এবং পেটুয়া প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এক পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। তাদের ভাবনা অনুসারে প্লাস্টিক ভর্তি বোতল দিয়ে বিদ্যালয়ের একটি বাউন্ডারি ওয়াল গড়ে তোলা হবে।  একদিকে  যেমন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সম্ভব হবে, আবার অন্য দিকে গঠনমূলক কাজও সম্ভব হবে। স্বাভাবিক ভাবেই পেটুয়া জুনিয়র হাই স্কুলের সবুজ কৌতূহলী মনগুলো জানতে চায়, বোতল ভর্তি প্লাস্টিকগুলো দিয়ে কী হবে? তাদের ডেমো দিয়ে দেখানো হয় স্কুলের বাউন্ডারি ওয়াল তৈরির জন্য ইকো ব্রিক প্রজেক্ট। ওদের চোখে মুখে সঙ্গে সঙ্গে ফুটে ওঠে সামান্য হাসি। অব্যশই তা কিছু নতুনকে খুঁজে পাওয়ার। পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণীর পড়ুয়ারা  ওয়ার্ক এডুকেশনের প্রোজেক্ট হিসাবে জমা দেয় প্রায় তিনশো প্লাস্টিক ভর্তি বোতল। 
স্কুলের শিক্ষক সনাতন জানা এক্সক্লুসিভ অধিরথ’এর সঙ্গে ভাগ করে নেন তাঁর অনুভুতির কথা। তাঁর কথায় প্লাস্টিকবিহীন এক দূষণমুক্ত পরিবেশ গঠনের লক্ষ্যে প্লাস্টিকের পুনঃব্যবহারই হোক আমাদের অঙ্গীকার। জমা হওয়া ইকো ব্রিকগুলি নিয়ে স্কুলের একদিকের প্রাচীর তৈরীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ইতিমধ্যেই সম্পন্ন। সনাতন জানার আশা, ছাত্র-ছাত্রীদের এই প্রচেষ্টা পেটুয়া বন্দর এবং বন্দর সংলগ্ন তিন থেকে চারটি গ্রাম প্লাস্টিক মুক্ত হবে। তিনি আরও জানান, চিলির বৈজ্ঞানিকও তাদের এই কাজের জন্য শুভেচ্ছাবার্তা পাঠিয়েছেন।
ভারত সরকারের নীতি আয়োগ জানিয়েছে, আগামী ২০২১ এর মধ্যে ভারতের বড় শহরগুলি জলশূন্য হতে চলেছে । এর পেছনে প্লাস্টিকের কতখানি ভূমিকা তা আমরা সবাই কমবেশি জানি। এই পরিস্থিতিতে দেশের নতুন যৌবনের দূতেরাই আরও একবার সবুজের হয়ে অভিযান ঘোষণা করুক, এমনটাই প্রত্যাশা।

Promotion