EXCLUSIVE NEWS

অভিনয় শেখানোর অছিলায় শ্লীলতাহানি, বিশিষ্ট নাট্য ব্যক্তিত্বের বিরুদ্ধে অভিযোগ

 

ফের এক অধ্যাপকের বিরুদ্ধে যৌন শ্লীলতাহানির অভিযোগ শহরে। এবারে উঠে এল বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব সুদীপ্ত চ্যাটার্জীর নাম, যিনি তাঁরই এক ছাত্রীর সঙ্গে এমন কাজ করেছেন বলে অভিযোগ। অভিযুক্ত সুদীপ্তবাবু আমেরিকা ও ইংল্যান্ডে অধ্যাপনা করেছেন এবং বর্তমানে কলকাতার হেরিটেজ অ্যাকাডেমি কলেজের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। গত ১৪ অক্টোবর ওই ছাত্রী তার সঙ্গে হওয়া ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ দিয়ে কলেজে অভিযোগ দায়ের করার পর নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে একটি পোষ্ট করেন। পোষ্টটি ভাইরাল হয়ে যায় মুহূর্তের মধ্যেই। সামনে আসে ঘটনাটি। অভিযুক্ত অধ্যাপক পরের দিনই পদত্যাগ করেন।

 

বছর কুড়ির ওই ছাত্রী জানিয়েছেন, গত মার্চে সুদীপ্ত বাবু একদিন এক নাটকের কাজে তাকে বাড়িতে ডেকেছিলেন।  বিশেষ একধরনের অভিনয় শিক্ষা দেওয়ার অছিলায় তার ব্যাক্তিগত স্থানে ছুঁতে শুরু করে দেন। আরও অনেক কিছুই ওই অধ্যাপক করেন যা সব দিক থেকেই শালীনতার মাত্রা ছাড়িয়ে গিয়েছিল। ভয়ে এবং আতঙ্কে সেদিন কিছু বলতে পারেননি ওই ছাত্রী। পরেও বেশ কয়েকবার  সুদীপ্তবাবু তার কাছে আসার চেষ্টা করলে তিনি, তাকে এড়িয়ে যান। তিনি আরো জানান মার্চের ওই ঘটনা তাঁকে মানসিক ভাবে যে আঘাত দিয়েছে তা এখনো সম্পূর্ণ কাটিয়ে উঠতে পারেননি তিনি। ন্যাক্কারজনক কাণ্ডটি সামনে আসার পর শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রী মহলে নিন্দার ঝড় ওঠে। “সুদীপ্ত বাবুর প্রতি সামান্য সম্মানটুকুও আর নেই” এমনটিই মন্তব্য করেছেন অনেকেই। অনেকেই ভুক্তভোগী ছাত্রী জানান তাদের সঙ্গেও সুদীপ্ত চ্যাটার্জী এমন অসভ্যতা করেছেন।

 

কলেজ কর্তৃপক্ষ কোনও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না নিয়ে কীভাবে অভিযুক্ত অধ্যাপকের পদত্যাগ পত্র গ্রহণ করলো তা দেখে বিস্মিত সকলেই। কলেজের তরফে জানানো হয়েছে, সুদীপ্ত বাবুকে ‘হিউম্যান রিসোর্স কমিটির’ সামনে ডাকা হয়েছিল জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। সেখানেই তিনি তাঁর পদত্যাগপত্র জমা দেন। ঘটনার জেরে কলেজ কর্তৃপক্ষ আভ্যন্তরীণ অভিযোগ জানানোর শাখায় ছাত্র প্রতিনিধি রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। অভিযুক্ত অধ্যাপক অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করে গিয়েছেন। তার বক্তব্য, অভিযোগকারিণী ছাত্রীর গোটা পোস্টটিই নাকি তথ্য বিকৃতিতে ভরা। তাঁর এও প্রশ্ন, কেন ঘটনার সাত মাস পরে এসে অভিযোগ তোলা হচ্ছে? তবে শেষ পাওয়া খবর অবধি পাওয়া খবরে সুদীপ্ত চ্যাটার্জীর অভব্য আচরণের শিকার হওয়া ছাত্রীরা একযোগে পুলিশে এফআইআর দায়ের করবেন বলেই জানা যাচ্ছে।                                                                                                                                                            

চিত্র ঋণ – উইকিপিডিয়া

Promotion