Notice: Undefined index: status in /home/dailynew7/public_html/exclusiveadhirath.com/wp-content/plugins/easy-facebook-likebox/easy-facebook-likebox.php on line 69

Warning: Use of undefined constant REQUEST_URI - assumed 'REQUEST_URI' (this will throw an Error in a future version of PHP) in /home/dailynew7/public_html/exclusiveadhirath.com/wp-content/themes/herald/functions.php on line 73
এক মিনিটে হাজার গাছ রোপণ, এরকমই কিছু অনন্য ভাবনার জন্য ভারত এক্সেলেন্সে ভূষিত রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের এই অধ্যাপক - Exclusive Adhirath
EXCLUSIVE NEWS

এক মিনিটে হাজার গাছ রোপণ, এরকমই কিছু অনন্য ভাবনার জন্য ভারত এক্সেলেন্সে ভূষিত রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের এই অধ্যাপক

 

রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ অধ্যাপক ডঃ তাপস পাল ভারত এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ও লিডিং এডুকেশানিস্ট অফ ইন্ডিয়া সম্মান লাভ করলেন। যদিও অনন্য ভাবনার এই কারিগরের কাছে পুরস্কার তথা সম্মান পাওয়া একটি অভ্যেসে পরিণত হয়েছে। ইতিমধ্যেই তিনি অনেক জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক সম্মানে সম্মানিত হয়েছেন। তবে চলতি বছরের ভারত এক্সেলেন্স সম্মান তিনি কোনও একটি কারণের জন্য পান নি, রয়েছে তার একাধিক কীর্তি। ‘এক্সক্লুসিভ অধিরথ’ তার সেই কীর্তিগুলিতেই খানিক চোখ বোলাল।
রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল বিভাগের সহকারী তরুণ অধ্যাপক ড: তাপস পাল গত ৯ ফেব্রুয়ারী দিল্লী ফ্রেন্ডশিপ ফোরামের তরফে পেলেন এই সম্মান। সিকিমের প্রাক্তন রাজ্যপাল চৌধুরী রণধীর সিং তার হাতে এই সম্মাননা তুলে দেন।  কেবলমাত্র শিক্ষাজগতেই নয়, পরিবেশ সংরক্ষণের জন্যও তাপস বাবু তিনি বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন। রায়গঞ্জ শহরে তিনি প্রথম ‘ইকোফ্রেন্ডলি ম্যারেজ’র প্রচলন করেন। এছাড়াও রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি ‘ওয়ান পিএইচডি, ওয়ান ট্রি’ চালু করেন। রায়গঞ্জের পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশের ১৪ টি গ্রামে সাস্টেইনেবল ডেভেলপমেন্ট রূপায়ণের জন্য তার অভিজ্ঞতার মাধ্যমে বিভিন্ন প্রস্তাবনা পৌরসভাকে দিয়েছেন। বর্তমানে চলছে তার কাজ। রাষ্ট্রপুঞ্জের আয়োজনে ইন্দোনেশিয়া ও কোরিয়াতে সাস্টেইনেবল ডেভেলপমেন্ট নিয়ে বিভিন্ন সেমিনারে অংশগ্রহণ করেছেন। প্রতিটি গবেষণার ধারণাকে বাস্তবায়ন করতে ‘স্থিতিশীল’ শব্দটির প্রয়োগে এবং তা দৃষ্টান্তমূলকভাবে উপস্থাপনায় বিশ্বাসী।
কিছুদিন আগে বিশ্ববাসীর কাছে আমাজন ফরেস্ট ফায়ার নিয়ে উদ্বিগ্নতা তুলে ধরেছিল মিডিয়াগুলি। ঠিক সেই সময় ব্রাজিলের ইউনিভার্সিটি অফ রণডোনিয়া থেকে আমাজন গবেষণার ডাক পান ‘পরিবেশ বন্ধু’ ড: তাপস পাল। সম্পদ মানুষের ব্যবহারের জন্য নয় এবং আমাজনকে তার জীববৈচিত্রতার সাথে স্বাভাবিক ভাবে থাকতে দেওয়ার বার্তা দেন অধ্যাপক। যার ফলস্বরূপ ব্রাজিলের জিইআইটিইসি’র সহযোগী গবেষক হিসেবে এবং রণডোনিয়া প্রশাসনের তরফেে সারাজীবনের জন্য আমাজন  নিয়ে গবেষণার ছাড়পত্র অর্জন করেন। সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক জগতেও তার অবাধ বিচরণ। তার লেখা দলিত পেশায় কর্মরত শ্রমিকদের নিয়ে ‘যাদের করেছো অপমান’ ইতিমধ্যেই সমালোচিত। মোটরবাইকে এক ভূগোলবিদের দৃষ্টিতে পশ্চিমবঙ্গ সফর নিয়ে ‘৩৭দিন’, হিন্দু শাস্ত্র ও ভূগোলের সম্পর্ক নিয়ে ‘বৈদিক জিওগ্রাফি’ বইগুলি উল্লেখযোগ্য। ডঃ পাল বিভিন্ন লুপ্তপ্রায় উপজাতি গোষ্ঠী, ফোক বা ইন্ডিজেনাস কালচার, জেন্ডার ইস্যুর মতো বিষয়ে গবেষণা জারী রেখেছেন।

Promotion