Editorial

জেল খেটেও পাওয়া যায় নোবেল? উত্তর হলো হ্যাঁ

লোকে বলে ছাত্রাবস্থায় রাজনীতির সাথে যুক্ত থাকা নাকি উচিৎ নয়। তাদের কাজ কেবল মাত্র মুখ গুঁজে পড়াশোনা করা। আপনিও সেই সেই দলেই পড়েন? যদি পড়েন তাহলে হয়ত এবার আপনার অন্যরকম ভাবার সময় হয়েছে। ২০১৯-এর অর্থনীতিতে নোবেলজয়ী মানুষটির ইতিহাস কিন্তু সেই কথাই বলে। হ্যাঁ, আমরা ড. অভিজিৎ ব্যানার্জির কথাই বলছি। তিনি তার দিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএনইউ) তে স্নাতকোত্তর পড়াশোনা করার সময় সক্রিয় রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। এমন কি জেলও খেটেছেন।

 

ভাবুন তো একবার! একে জেএনইউ তায় আবার জেল খাটা। আজকের দিনে হলে দেশদ্রোহী বলেই পরিচিত হয়ে যেতেন। কী এমন হল যে সোজা জেল? তৎকালীন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ হঠাৎ করেই পড়ার ফি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়। এর প্রতিবাদে মিটিং-মিছিল-অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন ছাত্রছাত্রীরা। তাদের ন্যায্য দাবী ছিল নিম্নবিত্ত ও নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে পড়তে আসা ছেলেমেয়েদের আর্থিক সঙ্কটের মধ্যে মধ্যে পড়তে হবে। তাই যথেচ্ছভাবে ফি বাড়ানো চলবে না। অনেককেই হয়ত যোগ্যতা থাকা সত্বেও এখানে পড়ার স্বপ্ন ত্যাগ করতেহবে আগামী দিনে কেবলমাত্র আর্থিক কারণেই। এই অভিজিৎ বাবু সেই আন্দোলনের একজন অন্যতম সদস্য ছিলেন। আসলে রাষ্ট্র তাঁর সমালোচনাকারীদের বরাবরই ‘দেশদ্রোহী’ তকমা দিয়ে গুলিয়ে দিতে চায় দেশ আর তাঁর সরকার ভিন্ন ভিন্ন সত্ত্বা। এ তারই উদাহরণ।

 

এই ঘটনা কি তাকে আন্দোলন থেকে বিরত রেখেছিল?

অভিজিৎ বাবুকে একটি সাক্ষাৎকারে এ নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। তিনি সহজাত বিনয়ের সাথে কিন্তু অকপটেই জানিয়ে দিয়েছেন ছাত্র রাজনীতি নিয়ে সাধারণ মানুষের এই ধারণা একেবারেই ভ্রান্ত। বরং তার মতে ছাত্রাবস্থায় রাজনীতির-আন্দোলনের এসবের সঙ্গে যুক্ত থাকার এক বড়ো সুফল রয়েছে। সমাজকে চিনতে পারার ক্ষমতা তৈরি হয় এতে। তিনি আরও বলেন অতীতে ছাত্র-আন্দোলনে যুক্ত থাকা এবং সামাজের নিচুস্তরের মানুষের সাথে মেশার অভিজ্ঞতা ভবিষ্যৎ গবেষণায় অনেক সাহায্য করেছে। আসলে তার ভাবনাচিন্তার প্রতিফলনও দেখা যায় তাঁর কাজে। তিনি যে কাজের জন্য নোবেল পান তা মূলতঃ সেই প্রান্তিক মানূষকে অর্থনৈতিক দিক থেকে মজবুত করার কথাই বলে। কলেজে উঠে ছাত্র রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়া যে সবসময়ই খুবই খারাপ, তা একে বারেই নয়। উল্টে সময় বুঝে দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা করা একান্ত জরুরী। যারা ছাত্রাবস্থায় রাজনীতি করার বিরুদ্ধে তাদের মোক্ষম জবাব এই নোবেল জয়।

চিত্র ঋণ – উইকিপিডিয়া

Promotion