Notice: Undefined index: status in /home/dailynew7/public_html/exclusiveadhirath.com/wp-content/plugins/easy-facebook-likebox/easy-facebook-likebox.php on line 69

Warning: Use of undefined constant REQUEST_URI - assumed 'REQUEST_URI' (this will throw an Error in a future version of PHP) in /home/dailynew7/public_html/exclusiveadhirath.com/wp-content/themes/herald/functions.php on line 73
সুনীল সাগরে সলিল-সমাধি চাইনিজ তাইপেইয়ের - Exclusive Adhirath
খেলার ক্ষণ

সুনীল সাগরে সলিল-সমাধি চাইনিজ তাইপেইয়ের

চিত্রঋণ – গুগল                                                      ভারত – ৫ চীনা তাইপেই – ০

 

ম্যাচের শুরুতেই আক্রমণে উঠে চাইনিজ তাইপেইকে চমকে দেয় ভারত। খেলার তৃতীয় মিনিটেই উদান্তার শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। খেলার ১২ তম মিনিটে ফ্রি-কিক পায় ভারত। যদিও সুনীল ছেত্রীর বাঁক খাওয়ানো শট গোলের বাইরে যায়। কিন্তু ১৪ মিনিটে জে জে লালপেখলুয়ার পাস থেকে নীল বাঘেদের অধিনায়ক সুনীল প্রথম গোলটি দাগেন। এরপরেও তাইপেইয়ের রক্ষণে ভূমিকম্প অব্যাহত থাকে। ২০ মিনিটে সুনীল ছেত্রীর শট কোনও রকমে বাঁচান বিপক্ষ গোলকিপার চে প্যান। প্রথমার্ধে চাইনিজ তাইপেইয়ের আক্রমণ একেবারেই দানা বাঁধতে পারেনি। ৩৪ তম মিনিটে ফের ভারতের গোল, আবারও সুনীল সাগরের গর্জন শোনা গেল। অনিরুদ্ধ থাপা, জেজে এবং সুনীল ত্রিভুজের ফসল এই গোলটি। বিরতি পর্যন্ত এই অগ্রগমন ধরে রাখে ভারত।

দ্বিতীয়ার্ধে স্ট্রাইকার হিসেবে ভারতের আশিক কুরুনিয়ানের অভিষেক ঘটলো। হোলিচরণ নাজারির পরিবর্তে নামলেন এই তরুণ। দ্বিতীয়ার্ধেও চলে প্রথমার্ধেরই রিপিট টেলিকাস্ট। বিপক্ষ ডিফেন্ডারকে চমৎকার ড্রিবল করে ৪৭ মিনিটে একক মুন্সিয়ানায় গোল করেন উদান্তা সিং। একের পর এক আক্রমণে দিশেহারা হয়ে পড়ে বিপক্ষ। এরপরেই অনবদ্য গোল করে হ্যাট্রিক করেন ভারত অধিনায়ক। কিন্তু আসল ট্যুইস্ট তখনও বোধহয় বাকি ছিল। বঙ্গসন্তান প্রণয় হালদার বক্সের বাইরে থেকে কোণাকুণি শটে আন্তর্জাতিক মানের গোল করে ৫-০ তে দেশকে এগিয়ে দেন। অতিরিক্ত সময়ে ভারতের গোলকিপার গুরপ্রীত সিং সান্ধু গোলের সম্ভাবনা রোধ করে ক্লিন শিট রাখতে সফল হলেন। এটি ব্যাতীত খেলার নির্ধারিত সময় পর্যন্ত এলোমেলো তাইপেই ভারতের বক্সেই সেভাবে ঢুকতে পারেনি।

তুলনামূলক দুর্বল প্রতিপক্ষকে নিয়ে আজ আরবসাগরের তীরে ভারত ছেলেখেলা করলো। তবে কেনিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের মতো শক্ত প্রতিপক্ষকে স্টিভন কনস্ট্যান্টাইনের ছেলেরা কীভাবে সামলায় সেদিকেই তাকিয়ে দেশের ফুটবলপ্রেমীরা।